পাহাড়ি মদ ও ধানী মরিচ

পাহাড়ি মদ ও ধানী মরিচ

+
১.
বিছানার দুপাশে দুজন
মাঝ বরাবর সরু ফোয়ারা
এখান থেকেই যাত্রার শুরু
পেরিয়ে গেলে কালকূট,আলিপুর দুয়ার
দিল্লি বিমানবন্দর
পথে যেতে যেতে
গোলাকার চাঁদ, পপিক্ষেত
পাহাড়ি মদ ও ধানী মরিচ
জীভে নুন স্বাদ
সুগারের মাত্রায়ও কম-বেশি আছে
এখানে কেউ জীবিত নয়
সাদা কাফনে মোড়া জোড়া লাশ
এখানে কোনো পাখি ডাকছে না
নীরব রাত্রি
+
২.
চন্দ্রিমা ও উষাকালে সিনথেটিক বৃষ্টি
জানালায় চৈনিক পর্দা
তোমার হাতও আজ মাটি ঘাঁটছে
খুঁড়ে নিচ্ছে শয্যা
ছুরি কয়েকটা গাঁথা ছিল কপালের মাঝ বরাবর
টেনে তুললে সাঁড়াশি দিয়ে
অসংখ্য তির আর বল্লমের ফলা পায়ের পাতায়
তুমিও গলায় পরে নিলে আস্ত একটা হাঁসুলি

Loading

জন্ম ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৭৫, মাদারীপুর শহরে নানাবাড়িতে। শৈশব হতেই ঢাকায় বেড়ে ওঠা। তিনি নৃবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা হতে। লিটল ম্যাগাজিনে লেখা শুরু করেছেন ২০০০ সালের পর থেকে। বিশেষত কবিতা, গল্প ও নৃবৈজ্ঞানিক লেখালেখি করেন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ: হারানো দোকান এল দরাদো (জনান্তিক, ফেব্রুয়ারি, ২০০৯), একজন আঙুল শুধু হেঁটে বেড়ায় (সংবেদ, ফেব্রুয়ারি, ২০১০) আর কারনেশন ফুটলো থরে থরে ( শুদ্ধস্বর ২০১৩), একটু একটু করে বোবা হয়ে যাচ্ছ তুমি (অ্যাডর্ন পাবলিকেশন, ফেব্রুয়ারী, ২০১৫), বারুদ লোবানের গন্ধ (চৈতন্য, ফেব্রুয়ারি ২০১৭), জলে ডোবা চাঁদ (ঐহিক প্রকাশনী, কলকাতা, জানুয়ারী ২০২০)। প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ :পেন্ডুলাম ও শিশুর দোলনা (শুদ্ধস্বর, ফেব্রুয়ারি ২০১১), জৌলুসী বেওয়া (দেশ পাবলিকেশন্স, ২০১৬) উপন্যাস : অন্তর্গত করবী (দেশ পাবলিকেশন্স, ফেব্রুয়ারী ২০২১), কেউ জানতে চায় নি (দেশ পাবলিকেশন্স, ফেব্রুয়ারী ২০২২ )। । এছাড়া পিয়াস মজিদের সাথে যৌথভাবে সম্পাদনা করেছেন নির্বাচিত কবিতা: শামীম কবীর (অ্যাডর্ন পাবলিকেশন, ফেব্রুয়ারি, ২০১০)। তিনি কিছুদিন নৃবিজ্ঞান বিষয়ে শিক্ষকতা করেছেন এবং কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে গবেষণা কাজের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। লিটল ম্যাগাজিন, ওয়েব ম্যাগাজিন, জার্নাল ও দৈনিক পত্রিকায় লেখেন।

12 Comments

  1. চমৎকার, শুভেচ্ছা রইলো।

  2. সুন্দর উপস্থাপন করেছেন কবি

Leave a Reply

Skip to toolbar